ধাঁধা-১ টেনিদা হল জব্দ ?!!

Filed in Uncategorized by on December 15, 2014
image_print

কুণাল চক্রবর্ত্তী

ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োলজিকাল সায়েন্সেস

পটলডাঙার চার মূর্তি টেনিদা, ক্যাবলা , প্যালারাম আর হাবুল যখন ফুটবল খেলে ফিরছিলো ওদের নজর হঠাৎই গিয়ে পড়লো মোড়ের দোকানের সদ্য ভাজা তেলেভাজা গুলোর ওপর ! গরম কালের সন্ধ্যেবেলা কি আর তেলেভাজা না খেলে মন ভরে ব্যাস অমনি আর দেখে কে, টেনিদা হুকুম করে বললো, “ক্যাবলা, তোর কাছে ১০টাকা দেখেছিলাম না ? যা জলদি চারটে গরম গরম বেগুনি কিনে নিয়ে আায় ।” টেনিদা ভারী পেটুক কাউকেই ভাগ না দিয়ে সব একা সাবড়ে দেয় ! ক্যাবলার চিন্তিত মুখ দেখে টেনিদা বলে উঠলো, ” ওরে চিন্তা নেই, সব্বাই সমান ভাগ পাবি তোরা, যা যা দেখ বেগুনি গুলো কীরকম হাতছানি দিয়ে ডাকছে !” সবাই জানে এটা টেনিদার মিথ্যে প্রতিশ্রুতি, কেউ কিচ্ছুটি পাবে না, সব টেনিদার পেটেই যাবে! অগত্যা কি আার করে ক্যাবলা চারটে বেগুনি কিনে নিয়ে ফেরার সময় টেনিদাকে জব্দ করার একটা দারুণ মতলব আঁটলো ! ক্যাবলা বেগুনি গুলো ঠোঁঙায় কিনে নিয়ে ফিরে টেনিদাকে বললো, ” আচ্ছা টেনিদা তুমি তো খুব বুদ্ধিমান বলে নিজেকে দাবী করো। একটা সমস্যার যদি চটপট সমাধান করতে পারো তবে দু’টো আলুর চপ আার একটা ভেজিটেবল চপ তোমায় আামি নিজে এমনিই কিনে খাওয়াবো আর যদি না পারো তো তোমাকে একটা বেগুনি খেয়েই মন ভরাতে হবে।” ক্যাবলার ছোঁড়া চ্যালেঞ্জ নিয়ে টেনিদা বলে উঠলো, ” বল বল কী সমস্যা, আমার আর তর সইছে না।” ক্যাবলা বললো, “টেনিদা আগে বেগুনি গুলো এমন ভাবে সবাইকে সমান ভাগে ভাগ করে দাও যাতে ঠোঁঙায় অন্তত একটা পড়ে থাকে আর একটা বেগুনিকেও ছিঁড়ে ভাগ করলে চলবে না।” টেনিদার পড়লো চিন্তায়…! বন্ধুরা তোমরা কি টেনিদাকে সাহায্য করবে , না হলে কিন্তু সব বেগুনি কটাই ঠাণ্ডা হয়ে যাবে!

image_print
(Visited 837 times, 1 visits today)

Tags: ,