কিছু ইতিহাস …

এখানে থাকবে বিজ্ঞানের কিছু কৃতি ব্যক্তিত্বের কথা, আবিষ্কারের কাহিনী ইত্যাদি।

সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনী: সাধারণ তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটীর সন্ধান

 
 
সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনী: সাধারণ তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটীর সন্ধান

শূন্য প্রতিরোধ কিংবা অভ্যন্তরে চুম্বকীয় ক্ষেত্রের বিলুপ্তি, এইসবের কারণে সুপারকন্ডাক্টারকে প্রযুক্তির দিক থেকে এক অভূতপূর্ব আশীর্বাদ হিসেবে ভাবা যায়। একটাই সমস্যা। যে তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটি দশা দেখা যায়, সেই তাপমাত্রায় পৌঁছতেই জটিল সরঞ্জাম লাগবে। তাই আরো উচ্চতর তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটি পাওয়া যায় কিনা, সেই খোঁজ শুরু হলো। এবং সন্ধান পাওয়া গেল কিছু যৌগের, যারা স্বাভাবিক তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটি-র স্বপ্নটাকে বাঁচিয়ে রাখলো। সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনীর তৃতীয় কিস্তিতে রয়েছে সেই গল্প।

আরো দেখো... »

সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনী: অক্ষয় বিদ্যুৎপ্রবাহের ব্যাখ্যা ও বি.সি.এস. তত্ত্ব

 
 
সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনী: অক্ষয় বিদ্যুৎপ্রবাহের ব্যাখ্যা ও বি.সি.এস. তত্ত্ব

বস্তুর মধ্যে প্রতিরোধ বা রেসিস্টেন্স-এর কারণ হলো যে স্থির অণুরা ইলেক্ট্রনের পথে বাধা সৃষ্টি করে। তাপমাত্রা খুব কমিয়ে দিলে সেই প্রতিরোধ বেমালুম ভ্যানিশ করে যায় কি করে? এর ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন তিন বিজ্ঞানী: জন বার্ডিন, লিওন কুপার ও জন রবার্ট শ্রীফার। তারা দেখিয়েছিলেন যে কম তাপমাত্রায় ইলেক্ট্রন-এর পরিচিত ধর্মকে ছাপিয়ে দেখা দেয় এক সম্পূর্ণ অপ্রত্যাশিত আচরণ। তাদের পদবীর আদ্যক্ষরে নামাঙ্কিত বি.সি.এস. তত্ত্ব নিয়ে আজকের আলোচনা।

আরো দেখো... »

মিউজিয়াম হাইলাইট: বোস ইনস্টিটিউট মিউজিয়াম

 
বিভাগ: কিছু ইতিহাস … on October 12, 2018 0 Comments
 
মিউজিয়াম হাইলাইট: বোস ইনস্টিটিউট মিউজিয়াম

রেডিও গবেষণায় জগদীশচন্দ্র বসু-র অবদান উল্লেখযোগ্য। ১৮৯৫ সালে তিনি অতিক্ষুদ্র তরঙ্গ (মিলিমিটার ওয়েভ) আবিষ্কার করেন। কোন তার ছাড়া এক স্থান থেকে অন্য স্থানে সেই তরঙ্গ প্রেরণ করে দেখান। সেই যন্ত্রপাতি ও তাঁর ব্যবহৃত অনেক জিনিস বসু বিজ্ঞান মন্দিরের সংগ্রহশালায় বা মিউজিয়ামে গেলে দেখা যেতে পারে। সেই মিউজিয়ামের কিছু ছবি বিজ্ঞানের পাতায় রইল দর্শক বন্ধুদের জন্য।

আরো দেখো... »

মিউয়ন কণার হাতে ধরা পড়লো পিরামিডের গুপ্ত কক্ষ

 
 
মিউয়ন কণার হাতে ধরা পড়লো পিরামিডের গুপ্ত কক্ষ

২০১৭-র নভেম্বর মাসে এক রহস্যের আবিষ্কার হলো। গিজা-র গ্রেট পিরামিড-এর ভিতর চেনাজানা কক্ষ ছাড়াও পাওয়া গেল এক গোপন কুঠুরি। তবে সেই কুঠুরি-র কিন্তু কোনো প্রবেশদ্বার নেই, কোথাও দেওয়াল-ও ধসে পড়েনি। তাহলে পিরামিড-এ খোঁড়াখুঁড়ি না করে কিভাবে জানা গেল যে কুঠুরিটা রয়েছে? সেখানেই রয়েছে বিজ্ঞানীদের কেরামতি, রয়েছে কণা পদার্থবিদ্যার আরেক অপ্রত্যাশিত বরদান, মিউয়ন টোমোগ্রাফি।

আরো দেখো... »

শূন্য (দ্বিতীয় পর্ব)

 
 
শূন্য (দ্বিতীয় পর্ব)

ইউরোপীয় সভ্যতায় শূন্যের ধারণা ছাড়াই এগোনোর প্রচেষ্টা হয়েছিল। শূন্যের অভাব পূরণ করতে নানারকম অনাবশ্যক জটিলতার সৃষ্টি হয়েছিল। ভারতীয়রা কিন্তু এই দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে ছিলেন। ব্রহ্মগুপ্ত-র লেখাতে প্রথম শূন্যর স্পষ্ট ধারণা পাওয়া গেলেও ভারতীয়রা যে তার অনেক আগে থেকেই শূন্যের সাথে পরিচিত ছিল, তার বেশ কিছু প্রমাণ পাওয়া যায়। অবশ্য তারও আগে শূন্যের অস্তিত্বের প্রমাণ পাওয়া যায় আরেকটি প্রাচীন সভ্যতার ইতিহাসে।

আরো দেখো... »

শূন্য (প্রথম পর্ব)

 
 
শূন্য (প্রথম পর্ব)

দশমিক সংখ্যাতন্ত্রের শুরুতেই থাকে শূন্য। কিন্তু এক, দুই, তিন, চার-এর সাথে এক গোত্রে ফেলা চলে না তাকে। কেন শূন্যের প্রয়োজন হলো আর শূন্যবিহীন গণিত কেমন ছিল, সেই ইতিহাসটা বেশ চমকপ্রদ। বলা যায়, শূন্য একটা বড়ো শূন্যস্থান পূরণ করেছিল।

আরো দেখো... »

সত্যি!!!

 
 
সত্যি!!!

একটা বৈজ্ঞানিক তত্ত্বকে কখন “সত্যি” বলে মেনে নেওয়া হবে? যদি তত্ত্বকে পর্যবেক্ষণের সাথে মিলিয়ে দিতে পারি, তাহলেই কি সেটা সত্যি? যদি পরবর্তীকালে নতুন কোনো পর্যবেক্ষণ সেই তত্ত্বের সাথে খাপ না খায়, তাহলে কি তত্ত্বটা আর সত্যি থাকবে না? একটা তত্ত্বকে সত্যিতে পরিণত হওয়ার আগে কোন কোন পরীক্ষায় পাশ করতে হয়? প্রচলিত যেসকল পথে বৈজ্ঞানিকরা সত্যি-র খোঁজ করেন, তার বর্ণনা দিয়েছেন দেবার্ঘ্য গোস্বামী।

আরো দেখো... »

গ্রাফিন-এ ডিরাক সমীকরণ: টেবিলের উপর আপেক্ষিকতাবাদের পরীক্ষা

 
 
গ্রাফিন-এ ডিরাক সমীকরণ: টেবিলের উপর আপেক্ষিকতাবাদের পরীক্ষা

ব্রিটিশ পদার্থবিদ পল ডিরাক-এর তত্ত্ব এমন ইলেক্ট্রনদের ধর্ম ব্যাখ্যা করে যারা আলোর কাছাকাছি গতিবেগ নিয়ে চলে এবং বিশেষ আপেক্ষিতকতাবাদ এর সূত্র মানে। কিন্তু এই তত্ত্বটিকে কি সাধারণ ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করে যাচাই করা সম্ভব? সেই গল্পই বলছেন কৃষ্ণেন্দু সেনগুপ্ত।

আরো দেখো... »

 

পাঁচমেশালী

বিজ্ঞানের জীবিকা - ভাবা অ্যাটমিক রিসার্চ সেন্টার


বিভাগ: বিজ্ঞানের জীবিকা (2018-04-20)

উচ্চমাধ্যমিকের পর ফিজিক্স কেমিস্ট্রি ইত্যাদি বিজ্ঞানের বিষয় নিয়ে পড়াশুনো করে ভবিষ্যতে কী কী চাকরী পাওয়া যায় তা নিয়ে অনেক সময়ই আমাদের পরিষ্কার ধারণা থাকে না। এই নিয়ে শুরু হচ্ছে নতুন বিভাগ, 'বিজ্ঞানের জীবিকা'। এই বিভাগের প্রথম লেখাতে সবজান্তা ঘন্টুদা ভাবা অ্যাটমিক রিসার্চ সেন্টারের বৈজ্ঞানিক আধিকারিকের চাকরীর কথা জানাচ্ছেন।

আরো দেখো

 
 

তুমি যদি কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর লেখা পেতে চাও অথবা তোমার যদি এমন কোনো প্রশ্ন থাকে যেটা তুমি কোনো বইতে বা ইন্টারনেটে খুঁজে পাওনি, তাহলে এই ফর্মটির মাধ্যমে আমাদের কাছে প্রশ্ন পাঠাও।

নিয়মাবলী

হোমওয়ার্ক জাতীয় প্রশ্ন পাঠাবে না।

ভালো প্রশ্নের উদাহরণ:

  1. নিউটনের মহাকর্ষ সূত্রে আমরা বিন্দুভর কেন ব্যবহার করি?
  2. গাছ মাটি থেকে জল কিভাবে টানে?
  3. ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াকে কিভাবে আক্রমণ করে?

আমরা যে ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেব না:

  1. ২ আর ২ যোগ করলে কত হয়?
  2. Autotroph কাদের বলে?

আর তুমি যদি বিজ্ঞানে লেখা পাঠাতে চাও, তাহলে এই ফর্মে প্রশ্ন করার কোনো দরকার নেই। এই পাতাতে লেখা পাঠানোর জন্য সমস্ত তথ্য পাবে: http://bigyan.org.in/oldabout/tosubmitarticles/

তোমার সঠিক ই-মেইল পাঠাও । ভুল ই-মেইল দেওয়া হলে, আমরা উত্তর দেব না।


*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
*
তুমি যদি কোনো না জানা প্রশ্নের উত্তর জানতে চাও তাহলে "প্রশ্নোত্তর" এ ক্লিক কর, আর যদি কোনো বিষয়ে লেখা পেতে চাও, তাহলে "লেখার বিষয়"-এ ক্লিক কর |
প্রশ্নোত্তর লেখার বিষয়
 
*
নীচের বাক্সতে বাংলায় অথবা ইংরেজিতে তোমার প্রশ্ন লেখ।
 
*
পদার্থবিদ্যা (Physics) জীববিদ্যা (Biology) রসায়ন (Chemistry) গণিত (Mathematics) রাশিবিদ্যা (Statistics) Other
 
*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
 
 
*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
 
 

বিজ্ঞান আপডেট

তোমার ইনবক্সে বিজ্ঞানের সাম্প্রতিক খবরাখবর

 

তুমি যদি কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর লেখা পেতে চাও অথবা তোমার যদি এমন কোনো প্রশ্ন থাকে যেটা তুমি কোনো বইতে বা ইন্টারনেটে খুঁজে পাওনি, তাহলে এই ফর্মটির মাধ্যমে আমাদের কাছে প্রশ্ন পাঠাও।

নিয়মাবলী

হোমওয়ার্ক জাতীয় প্রশ্ন পাঠাবে না।

ভালো প্রশ্নের উদাহরণ:

  1. নিউটনের মহাকর্ষ সূত্রে আমরা বিন্দুভর কেন ব্যবহার করি?
  2. গাছ মাটি থেকে জল কিভাবে টানে?
  3. ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াকে কিভাবে আক্রমণ করে?

আমরা যে ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেব না:

  1. ২ আর ২ যোগ করলে কত হয়?
  2. Autotroph কাদের বলে?

আর তুমি যদি বিজ্ঞানে লেখা পাঠাতে চাও, তাহলে এই ফর্মে প্রশ্ন করার কোনো দরকার নেই। এই পাতাতে লেখা পাঠানোর জন্য সমস্ত তথ্য পাবে: http://bigyan.org.in/oldabout/tosubmitarticles/

তোমার সঠিক ই-মেইল পাঠাও । ভুল ই-মেইল দেওয়া হলে, আমরা উত্তর দেব না।


*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
*
তুমি যদি কোনো না জানা প্রশ্নের উত্তর জানতে চাও তাহলে "প্রশ্নোত্তর" এ ক্লিক কর, আর যদি কোনো বিষয়ে লেখা পেতে চাও, তাহলে "লেখার বিষয়"-এ ক্লিক কর |
প্রশ্নোত্তর লেখার বিষয়
 
*
নীচের বাক্সতে বাংলায় অথবা ইংরেজিতে তোমার প্রশ্ন লেখ।
 
*
পদার্থবিদ্যা (Physics) জীববিদ্যা (Biology) রসায়ন (Chemistry) গণিত (Mathematics) রাশিবিদ্যা (Statistics) Other
 
*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
 
 
*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
 
 

বিজ্ঞান আপডেট

তোমার ইনবক্সে বিজ্ঞানের সাম্প্রতিক খবরাখবর

 
top