পদার্থবিদ্যার কিছু বিস্ময়

প্রথম ক্যামেরাদের আজব গল্প

 
 
প্রথম ক্যামেরাদের আজব গল্প

ঊনবিংশ শতাব্দীতে ফরাসী লুই ড্যাগের ছবি তোলার এক আশ্চর্য পদ্ধতি বার করেছিলেন। নিজের নাম দিয়ে ড্যাগেরোটাইপ বলে একধরণের বিশেষভাবে তৈরী প্লেট চালু করেছিলেন তিনি। ওনার দাবি ছিল, ওই প্লেট-এ উনি সামনের দৃশ্য বন্দী করতে পারবেন। অনেকে এই ড্যাগেরোটাইপ-কেই ফটোগ্রাফি-র যাত্রাশুরু বলে ভেবে থাকেন। কিন্তু এই ড্যাগেরোটাইপ-এ কিভাবে একটা ছবি ধরা পড়ে, সেই প্রশ্নের সবটা কিন্তু এখনো জানা যায়নি। একদল বিজ্ঞানী নামলেন না-জানা উত্তরগুলো খুঁজতে।

আরো দেখো... »

সে যতই কালো হোক

 
 
সে যতই কালো হোক

লেন্সের মত মহাকর্ষও আলোর পথ বাঁকিয়ে দিতে পারে। এমনকি মহাকর্ষের শক্তি বেশী হলে আলোকে পুরো ভ্যানিশও করে ফেলতে পারে। ছবি-প্রমাণসহ ব্ল্যাক হোলের হাল-হকিকত শোনাচ্ছেন স্বয়ং প্রফেসর নিধিরাম পাটকেল!

আরো দেখো... »

সাইজ-এর মাহাত্ম্য

 
 
সাইজ-এর মাহাত্ম্য

১৯২৬ সালে বিজ্ঞানী জে বি এস হ্যালডেন On Being the Right Size নামে একটি প্রবন্ধে বলেছিলেন, যে কোনো প্রজাতির একটা সঠিক সাইজ আছে। সাইজ পাল্টে দিলে প্রজাতিটার চেহারাছবিই পাল্টে যেত, অর্থাৎ সেটা অন্য আরেকটা প্রজাতিতে পরিণত হত। এই কথাটির সমর্থনে উনি অনেক আশ্চর্য উদাহরণ তুলে ধরেছিলেন প্রাণীজগতের থেকে। জলহস্তী থেকে গঙ্গাফড়িং, কিভাবে সব প্রজাতি তাদের সাইজের আদেশ মেনে চলেছে, দেখুন এই অসাধারণ প্রবন্ধটিতে।

আরো দেখো... »

কার্টুনের মাধ্যমে বিজ্ঞানশিক্ষা

 
 
কার্টুনের মাধ্যমে বিজ্ঞানশিক্ষা

বিজ্ঞানে যুক্তি প্রাধান্য পায় বেশি; আবেগ বা শিল্পের বহিঃপ্রকাশ সেখানে সচরাচর কম। তাই বিজ্ঞান শিক্ষা অনেক ক্ষেত্রেই নবীন মনের কাছে শুকনো মনে হয়। এই সমস্যাটার মোকাবিলা করতেই মাঠে নেমেছেন এক বৈজ্ঞানিক ও এক কার্টুনিস্ট। দুজনের যৌথ প্রচেষ্টায় তৈরী হয়েছে পদার্থবিদ্যা শেখার এক অভিনব পদ্ধতি। আজ তারই প্রথম কিস্তি।

আরো দেখো... »

ভরের উৎস সন্ধানে

 
 
ভরের উৎস সন্ধানে

ক্লাসিক্যাল পদার্থবিদ্যায় ভর (mass) একটা মূল ধারণা, যার উৎস নিয়ে আমরা প্রশ্ন করি না। কিন্তু আমরা কি বস্তুর ভরের পরিমাপ তার আরো মৌলিক কোনো ধর্ম থেকে পেতে পারি? আধুনিক কণাপদার্থবিদ্যা ভরের উৎসের যে হদিশ দেয় তার গল্প বলছেন বিজিৎ সিংহ।

আরো দেখো... »

মহাবিশ্বের নতুন জানালা

 
 
মহাবিশ্বের নতুন জানালা

মহাকর্ষীয় তরঙ্গের আবিষ্কার মহাবিশ্বের এক নতুন জানালা খুলে দিয়েছে। কিন্তু এর আগেও অনেক জানালা একে একে খুলেছিলো মানুষের কাছে। ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক তরঙ্গের গোটা ব্যাপ্তিটাকে মানুষ ব্যবহার করতে শিখেছিল মহাকাশ পর্যবেক্ষণের কাজে। সেই ইতিহাস বলছেন ড: সুদীপ ভট্টাচার্য।

আরো দেখো... »

রান্নাঘরের মাইক্রোওয়েভ থেকে প্লাজমা

 
 
রান্নাঘরের মাইক্রোওয়েভ থেকে প্লাজমা

কঠিন থেকে তরল থেকে গ্যাস, তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফলে পদার্থের দশা পরিবর্তনের এই কাহিনী আমাদের পরিচিত। কিন্তু সূর্যের মতো নক্ষত্রের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রায় পদার্থের দশা কি হয়? যেটা হয়, তাকে বলে প্লাজমা, ইলেক্ট্রন ছিটকে বেরিয়ে যাওয়ার ফলে তৈরী ধনাত্মক আর ঋণাত্মক আধানের একটা স্যুপ। বিজ্ঞানীরা এই প্লাজমা অবস্থা গবেষণাগারে তৈরী করে তার ওপর পরীক্ষা চালিয়ে থাকেন। কিন্তু সেই পরীক্ষা এখন আমাদের নাগালের মধ্যে চলে আসতে পারে। প্লাজমা অবস্থা তৈরী করতে শুধু চাই একটা মাইক্রোওয়েভ ওভেন।

আরো দেখো... »

সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনী: সাধারণ তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটীর সন্ধান

 
 
সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনী: সাধারণ তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটীর সন্ধান

শূন্য প্রতিরোধ কিংবা অভ্যন্তরে চুম্বকীয় ক্ষেত্রের বিলুপ্তি, এইসবের কারণে সুপারকন্ডাক্টারকে প্রযুক্তির দিক থেকে এক অভূতপূর্ব আশীর্বাদ হিসেবে ভাবা যায়। একটাই সমস্যা। যে তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটি দশা দেখা যায়, সেই তাপমাত্রায় পৌঁছতেই জটিল সরঞ্জাম লাগবে। তাই আরো উচ্চতর তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটি পাওয়া যায় কিনা, সেই খোঁজ শুরু হলো। এবং সন্ধান পাওয়া গেল কিছু যৌগের, যারা স্বাভাবিক তাপমাত্রায় সুপারকন্ডাক্টিভিটি-র স্বপ্নটাকে বাঁচিয়ে রাখলো। সুপারকন্ডাক্টারের কাহিনীর তৃতীয় কিস্তিতে রয়েছে সেই গল্প।

আরো দেখো... »

 

 

পাঁচমেশালী

পাঠকের দরবার ৮: বাঁদর থেকে মানুষ হতে কেউ দেখে নি। তাহলে বিজ্ঞানীরা কি করে বিবর্তন সম্বন্ধে নিশ্চিত হলেন?


বিভাগ: কিছু ইতিহাস …, জীবন বিজ্ঞান, পাঠকের দরবার, বিস্ময়ের জীবজগৎ (2019-03-01)

চোখে না দেখে কিভাবে বোঝা সম্ভব, প্রায় চারপেয়ে বাঁদর শিরদাঁড়া সোজা করে একদিন হাঁটতে শিখলো? ইদানিং এই সন্দেহ কিছু মহলে প্রকাশ করা হয়েছে। সেই প্রশ্নেরই জবাব দিচ্ছেন IISER কলকাতা-র অধ্যাপিকা, ড: অনিন্দিতা ভদ্র। আজকে প্রথম কিস্তি।

আরো দেখো

 
 
 
 

তুমি যদি কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর লেখা পেতে চাও অথবা তোমার যদি এমন কোনো প্রশ্ন থাকে যেটা তুমি কোনো বইতে বা ইন্টারনেটে খুঁজে পাওনি, তাহলে এই ফর্মটির মাধ্যমে আমাদের কাছে প্রশ্ন পাঠাও।

নিয়মাবলী

হোমওয়ার্ক জাতীয় প্রশ্ন পাঠাবে না।

ভালো প্রশ্নের উদাহরণ:

  1. নিউটনের মহাকর্ষ সূত্রে আমরা বিন্দুভর কেন ব্যবহার করি?
  2. গাছ মাটি থেকে জল কিভাবে টানে?
  3. ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াকে কিভাবে আক্রমণ করে?

আমরা যে ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেব না:

  1. ২ আর ২ যোগ করলে কত হয়?
  2. Autotroph কাদের বলে?

আর তুমি যদি বিজ্ঞানে লেখা পাঠাতে চাও, তাহলে এই ফর্মে প্রশ্ন করার কোনো দরকার নেই। এই পাতাতে লেখা পাঠানোর জন্য সমস্ত তথ্য পাবে: http://bigyan.org.in/oldabout/tosubmitarticles/

তোমার সঠিক ই-মেইল পাঠাও । ভুল ই-মেইল দেওয়া হলে, আমরা উত্তর দেব না।


*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
*
তুমি যদি কোনো না জানা প্রশ্নের উত্তর জানতে চাও তাহলে "প্রশ্নোত্তর" এ ক্লিক কর, আর যদি কোনো বিষয়ে লেখা পেতে চাও, তাহলে "লেখার বিষয়"-এ ক্লিক কর |
প্রশ্নোত্তর লেখার বিষয়
 
*
নীচের বাক্সতে বাংলায় অথবা ইংরেজিতে তোমার প্রশ্ন লেখ।
 
*
পদার্থবিদ্যা (Physics) জীববিদ্যা (Biology) রসায়ন (Chemistry) গণিত (Mathematics) রাশিবিদ্যা (Statistics) Other
 
*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
 
 

বিজ্ঞান আপডেট

তোমার ইনবক্সে বিজ্ঞানের সাম্প্রতিক খবরাখবর

 

তুমি যদি কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর লেখা পেতে চাও অথবা তোমার যদি এমন কোনো প্রশ্ন থাকে যেটা তুমি কোনো বইতে বা ইন্টারনেটে খুঁজে পাওনি, তাহলে এই ফর্মটির মাধ্যমে আমাদের কাছে প্রশ্ন পাঠাও।

নিয়মাবলী

হোমওয়ার্ক জাতীয় প্রশ্ন পাঠাবে না।

ভালো প্রশ্নের উদাহরণ:

  1. নিউটনের মহাকর্ষ সূত্রে আমরা বিন্দুভর কেন ব্যবহার করি?
  2. গাছ মাটি থেকে জল কিভাবে টানে?
  3. ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াকে কিভাবে আক্রমণ করে?

আমরা যে ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেব না:

  1. ২ আর ২ যোগ করলে কত হয়?
  2. Autotroph কাদের বলে?

আর তুমি যদি বিজ্ঞানে লেখা পাঠাতে চাও, তাহলে এই ফর্মে প্রশ্ন করার কোনো দরকার নেই। এই পাতাতে লেখা পাঠানোর জন্য সমস্ত তথ্য পাবে: http://bigyan.org.in/oldabout/tosubmitarticles/

তোমার সঠিক ই-মেইল পাঠাও । ভুল ই-মেইল দেওয়া হলে, আমরা উত্তর দেব না।


*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
*
তুমি যদি কোনো না জানা প্রশ্নের উত্তর জানতে চাও তাহলে "প্রশ্নোত্তর" এ ক্লিক কর, আর যদি কোনো বিষয়ে লেখা পেতে চাও, তাহলে "লেখার বিষয়"-এ ক্লিক কর |
প্রশ্নোত্তর লেখার বিষয়
 
*
নীচের বাক্সতে বাংলায় অথবা ইংরেজিতে তোমার প্রশ্ন লেখ।
 
*
পদার্থবিদ্যা (Physics) জীববিদ্যা (Biology) রসায়ন (Chemistry) গণিত (Mathematics) রাশিবিদ্যা (Statistics) Other
 
*
 
*
 
*
 
স্কুলে পড়ি কলেজে / বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি গবেষণার সাথে যুক্ত শিক্ষক চাকুরিজীবী অন্যান্য

*

 
 
 

বিজ্ঞান আপডেট

তোমার ইনবক্সে বিজ্ঞানের সাম্প্রতিক খবরাখবর

 
top